ইউটিউব ভিডিওর ট্যাগ কেনো ট্যাগ দেখবেন?

 কারন হলো একটা নতুন আপলোডকৃত ভিডিওকে র্যাঙ্ক করানোর জন্য হাই সার্চ ভলিউম ট্যাগের গুরুত্ব অপরিসীম। আপনি যদি আপনার আপলোডকৃত ভি‌ডিওটির কিওয়ার্ড রিলেটেড  অন্য একটি র্যান্ক করা ভিডিওর সাজেস্টে যেতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনার ভিডিওটিও র্যান্কে পৌছানো সম্ভব।

আরেকটু সহজ ভাযায় ব্যখা করে বলি...... মনে করুন আপনি এসইও কি? এটি নিয়ে একটি ভিডিও তৈরী করলেন, এখানে আপনার ভি‌ডিওর কিওয়ার্ড টি হলো এসইও কি? এরপর আপনি যদি ইউটিউবে গিয়ে সার্চ করেন এসইও কি? তাহলে দেখবেন অনেক ভি‌ডিও রয়েছে, তারমধ্যে কিছু ভি‌ডিও দেখবেন লিস্টের এক্কেবারে উপরে; কোনো অনুসন্ধানকারী যখন কোনো কিছু অনুসন্ধান করে তখন কিন্তু সার্চ রেজাল্ট পেজের উপরের ৩টি ভিডিওই বেশী দেখে। আপনি যেহুতু নতুন সবে মাত্র ভিডিও তৈরী করলেন এটি র্যান্ক করানো সহজ হবেনা যদি ভালোভাবে এসইও না করতে পারেন, কারন আপনার কম্পিটররা ইতিমধ্যে এই কিওয়ার্ড র্যান্ক করে ফেলেছে তাই বলে যে আপনি এই ভিডিওটি আপলোড করবেন না বা এটি র্যান্ক করাতে পারবেননা এমনটা বলছিনা। আপনাকে আপনার প্রতিযোগিদের তুলনায় বেশী মাথা খাটাতে হবে এন্ড বেশী শ্রম দিতে হবে। 

You tags


কিভাবে কম্পিটিটরদের র্যান্ক করা ভিডিওকে পেছনে ফেলে নিজের ভিডওটি র্যান্ক করাবেন?

এর জন্য আপনার ভিডিওটিকে এসইও করতে হবে। 

এসইওরই একটা অংশ আমি এই পোস্টে আমি আপনাদেরকে শিখিয়ে দিবো। যার মাধ্যমে কম্পিটিটরের মাধ্যেমেই আপনি অনেক ভিউয়ারস ও অনেক সাবস্ক্রাইবারস পাবেন। ভাবুনতো যে আপনার প্রতিযোগি সে কি আপনাকে সাহায্য করবে ইচ্ছে করে? তার ভিডিওর মাধ্যেমে কি আপনার ভিডিওটি র্যান্ক করাতে সাহায্য করবে? মোটেই না। কারন সে যদি আপনাকে সাহায্য করে তাহলে তারই লস, তার ভিডিওটি পেছনে ফেলে আপনার ভিডিওটি র্যান্কিং চলে যাবে। আচ্ছা ঠিকআছে তার পারমিশন ছাড়াই আমাদের ভিডিওটি তার ভিডিওর মাধ্যেমে প্রমোট বা র্যান্ক করবো, এই যে আমরা র্যান্ক করা ভিডিওর মালিকের পারমিশন ছাড়া তার ভিডিওর সাজেশনে আমাদের ভিডিওটি দিবো এটি কিন্তু আমার বা আপনার কোনো অপরাধ হবেনা, কারন হলো ইউটিউবই সুযোগ দিচ্ছে অন্যের ভিডিওতে আরেকটা ভিডিও সাজেস্ট করা। 


কিওয়ার্ড কি? এই র্যান্ক করা ফাস্ট ভিডিওটির সাজেশনে আমাদের ভিডিওটি সেট করতে হলে সেই ভিডিওটির হাই সার্চ ভলিউম ট্যাগ গুলো বের করতে হবে এবং আমাদের ভিডির ট্যাগে ব্যবহার করলেই তার ভিডিওর সাজেশনে যাবে আমাদের ভিডিওটি।

তাহলে আমাদের প্রথম কাজ হলো ইউটিউবে গিয়ে যে ভিডিওটির ট্যাগগুলো আমরা দেখতে চাচ্ছি সেই ভিডিওর থ্রিডট আইকনে ক্লিক করতে হবে।

ওহো আপনার ফোনে একটা এ্যাপসের প্রয়োজন হবে সেটি ইনস্টল করে নিন, এর জন্য প্লেস্টোরে যান এবং সার্চ করুন "YouTagsPro" লিখে তাহলেই এ্যাপটি পেয়ে যাবেন। ইনস্টল করুন এবং ওপেন করুন। 


আপনি যে ভিডিওটির ট্যাগ বের করবেন সেই ভিডওটির থ্রি ডটে ক্লিক করুন


এখন শেয়ার বাটনে ক্লিক করুন


এরপরে youTagsPro এ্যাপটিতে শেয়ার করুন


এরপরে ১০ সেকেন্ডের মধ্যেই দেখতে পাবেন ভিডিওটির সব ট্যাগগুলো।


আপনি এখান থেকে আপনার ইচ্ছেমতো ট্যাগগুলো সিলেক্ট করে কপি করে নোটপ্যাডে রেখে, কিওয়ার্ড রিসার্চ টুলস দিয়ে চেক করে দেখুন কোন ট্যাগগুলোর বেশী সার্চ ভলিউম, সেগুলো ভিন্ন করে রাখুন। অথবা আপনি যদি রিসার্চ না করেও এই ট্যাগগুলো আপনার ভিডিওর ট্যাগে ব্যবহার করেন তাহলেও আপনি ওই র্যান্ক করা ভিডিওর সাজেশনে যেতে পারবেন। আপনি যদি একটি র্যান্ক করা ভিডিওর সাজেশনে যেতে পারেন তাহলে আপনি সেখান থেকে অনেক অনেক ভিউস পেতে পারেন। একটা ভিডিওকে র্যান্ক করানোর জন্য সর্বপ্রথম যে জিনিসটির দিকে আপনাকে নজর দিতে হবে তা হলো থাম্বনাইল এন্ড ভিউস। একটা ভিডিওর থাম্বনাইল যতোবেশী সুন্দর হবে সে ভিডিওটি ততো বেশী ভিউস পাবে। আর আপনার ভিডিওটির যদি বেশী ভিউস থাকে তাহলে লোকজনে বেশী দেখবে ক্লিক করে এরপরে দেখা যাবে আপনার ভিডিওটি র্যান্কে যাওয়া সহজ হবে।

Share To:

Post A Comment:

0 comments so far,add yours